আয় করুন
$50000
বন্ধুদের আমন্ত্রণ করার জন্য
ইন্সটাফরেক্স থেকে স্টার্টআপ
বোনাস নিন
কোন বিনিয়োগের প্রয়োজন নেই!
কোনো বিনিয়োগ এবং ঝুঁকি
ছাড়াই ট্রেডিং শুরু করতে
গ্রহণ করুন নতুন স্টার্টআপ
বোনাস $1000
বোনাস নিন
৫৫%
ইন্সটাফরেক্স থেকে
প্রতিবার অর্থ জমাদানে
+ প্রসঙ্গে প্রত্যুত্তর
পৃষ্ঠা 1 of 2 12 গতগত
ফলাফল দেখাচ্ছে 1 হইতে 10 সর্বমোট 15

প্রসংগ: অনলাইন শপিং ও বাংলাদেশ

  1. #1 সঙ্কুচিত পোস্ট
    প্রবীণ সদস্য FXBD's Avatar
    নিবন্ধনের তারিখ
    Oct 2017
    মন্তব্য
    233
    অর্জিত পেমেন্টস
    26.44 USD
    ধন্যবাদ
    428
    77 টি পোস্টের জন্য 264 বার ধন্যবাদ পেয়েছেন

    অনলাইন শপিং ও বাংলাদেশ

    বাংলাদেশ তরুনরা এখন অনলাইন শপিংয়ের প্রতি আগ্রহ দেখাচ্ছে, কেনানা তারা ঘরে বসেই নিজের বাসার কম্পিউটারে নিজের জন্য পোশাক ও আনুষাঙ্গিক জিনিস এর পাশাপাশি তার পরিবারের জন্যও সহজেই পছন্দ করেতে পারছে এবং সেটা হোম ডেলিভারি পাচ্ছে। এছাড়া বাইরে শপিং করাটা অনেক ঝামেলাপুর্ণ্, কেনানা ব্যবস্ততায় সময় পাওয়া যায় না, বাইরে ভ্যাপসা গরম বা বৃষ্টি ছাড়াও রাস্তায় যানজট আর ভিড় রয়েছে। আর এখন একটি ই-কমার্স সাইট থেকে সে সবকিছু নিজের প্রয়োজন মত কাঙ্খিত পণ্যটি যাচাই করে কিনতে পারছে।

  2. PAMM
  3. #2 সঙ্কুচিত পোস্ট
    প্রবীণ সদস্য rafiuqlislam's Avatar
    নিবন্ধনের তারিখ
    Apr 2018
    অবস্থান
    narail afra
    মন্তব্য
    666
    অর্জিত পেমেন্টস
    628.77 USD
    ধন্যবাদ
    14
    233 টি পোস্টের জন্য 298 বার ধন্যবাদ পেয়েছেন
    বর্তমান বাংলাদেশে এখন অনলাইনের মাধ্যমে অনেক কিছুই করা সম্ভব।ঘরে বসে আপনার পছন্দনীয় জিনিস অনলাইনের মাধ্যমে ক্রয় করতে পারেন।মার্কেটে গিয়ে একটা জিনিস কিনতে সময়ের প্রয়োজন।কিন্ত আপনার পছন্দনীয় জিনিস ঘরে বসে ডেলিভারি পাবেন যা আগে ছিল কল্পনার অতীত।শুধু শপিং নয় এখন ঘরে বসে কম্পিউটারের মাধ্যমে ভাল ইনকামের সুযোগও রয়েছে।

  4. আপনার ধন্যবাদ সরিয়ে ফেলুন

    নিম্নলিখিত দরকারী পোস্টের জন্য rafiuqlislam কে ধন্যবাদ জানিয়েছেন:

    Unregistered (1 )

  5. #3 সঙ্কুচিত পোস্ট
    প্রবীণ সদস্য Rakib Hashan's Avatar
    নিবন্ধনের তারিখ
    Jan 2018
    মন্তব্য
    275
    অর্জিত পেমেন্টস
    563.81 USD
    ধন্যবাদ
    391
    103 টি পোস্টের জন্য 589 বার ধন্যবাদ পেয়েছেন
    দেশে গৃহবধু থেকে শুরু করে কলেজ বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা পর্যন্ত সবাই অনলাইন ওয়েবসাইট এবং ফেসবুক ব্যবহার করে অনলাইন শপিংয়ের বিজনেজ শুরু করেছে। আর তথ্যপ্রযুক্তি বিশ্লেষক ও বাংলাদেশ ওপেন সোর্স নেটওয়ার্কের (বিডিওএসএন) তথ্য অনুসারে এই ওয়েবভিত্তিক অনলাইন শপগুলো থেকে প্রতি বছর বাংলাদেশে এখন প্রায় এক হাজার কোটি টাকার পণ্যসাগ্রীর ক্রয় বিক্রয় করা হয়, যেখানে প্রায় প্রতিদিন ২০ হাজার পর্যন্ত অনলাইন অর্ডার হোম ডেলিভারি দেয়া হয়। তাই সহজে ঘরে বসে কাঙ্ক্ষিত পণ্য পেতে অনলাইন শপিংসাইটগুলো ধীরে ধীরে শক্তিশালী প্লাটফর্ম হয়ে উঠছে।

  6. আপনার ধন্যবাদ সরিয়ে ফেলুন

    নিম্নলিখিত দরকারী পোস্টের জন্য Rakib Hashan কে ধন্যবাদ জানিয়েছেন:

    Unregistered (1 )

  7. #4 সঙ্কুচিত পোস্ট
    প্রবীণ সদস্য Montu Zaman's Avatar
    নিবন্ধনের তারিখ
    Feb 2018
    মন্তব্য
    649
    অর্জিত পেমেন্টস
    1,026.62 USD
    ধন্যবাদ
    393
    195 টি পোস্টের জন্য 575 বার ধন্যবাদ পেয়েছেন
    সম্প্রতি বাংলাদেশ সরকার ই-কমার্স খাতে একটি নীতিমালা করেছে, নীতিমালায় বলা হয়েছে, ‘ডিজিটাল কমার্স বা ই-কমার্স খাতে বিদেশি বিনিয়োগের ক্ষেত্রে বাংলাদেশি কোম্পানি ও অনুরূপ বিদেশি কোম্পানি ৫১:৪৯ ইক্যুইটি ভিত্তিক মালিকানা ব্যবস্থায় প্রযোজ্য হবে।’ এর মানে হল কোন দেশীয় কোম্পানির সঙ্গে যৌথ বিনিয়োগ ছাড়া অন্য কোন বিদেশী কোম্পানী বাংলাদেশের ই-কমার্স খাতে ব্যবসা করতে পারবে না। যার কারনে অনলাইন শপিং খাতে দেশীয় উদ্যোক্তা বা দেশীয় কোম্পানীগুলো সুরক্ষা ও বিকশিত হওয়ার সুযোগ পাবে বলে আমার মনে হচ্ছে।

  8. #5 সঙ্কুচিত পোস্ট
    প্রবীণ সদস্য rafiuqlislam's Avatar
    নিবন্ধনের তারিখ
    Apr 2018
    অবস্থান
    narail afra
    মন্তব্য
    666
    অর্জিত পেমেন্টস
    628.77 USD
    ধন্যবাদ
    14
    233 টি পোস্টের জন্য 298 বার ধন্যবাদ পেয়েছেন
    অনলাইন শপিং এখন আর তেমন কিছু নয়।আমি বলি- এখন অনলাইনে রান্না-বান্না,খাওয়া-দাওয়া সবকিছুই সম্ভব। আমরা যা আগে কল্পনা করতে পারতাম না, তা আজ আমাদের কাছে এক সহজসাধ্য ব্যাপার।আপনার একটা পোষাক প্রয়োজন, বাড়ীতে বসে পছন্দণীয় পোষাক অর্ডার করলেই আপনার দোর গোড়ায় উপস্থিত।

  9. #6 সঙ্কুচিত পোস্ট
    প্রবীণ সদস্য Rassel Vuiya's Avatar
    নিবন্ধনের তারিখ
    Feb 2018
    মন্তব্য
    268
    অর্জিত পেমেন্টস
    370.19 USD
    ধন্যবাদ
    336
    123 টি পোস্টের জন্য 657 বার ধন্যবাদ পেয়েছেন
    দেশের সবচেয়ে বড় লাইফ স্টাইল ব্যান্ড হল আড়ং। সারাদেশে ২১ টি আউটলেট ছাড়াও অনলাইন শপ রয়েছে। সম্প্রতি এর ৪০ বছর পূর্তি উপলক্ষ্যে প্রতিষ্ঠানটির জ্যেষ্ঠ পরিচালক তামারা হাসান আবেদ বলেছেন আগামী দিনগুলোতে গ্লোবাল ই কমার্স ডেলিভারির উপর জোর দিতে চায় প্রতিষ্ঠানটি। ফলে এই্*বোর দেশের গন্ডি ছাড়িয়ে বিদেশে ব্যবসা সম্প্রসারণ করতে চায় লাইফ স্টাইল ব্র্যান্ড আড়ং। যা আগামী ছয় মাসের মধ্যেই এ সংক্রান্ত প্রস্তুতি শেষ করবে তারা।

  10. আপনার ধন্যবাদ সরিয়ে ফেলুন

    নিম্নলিখিত দরকারী পোস্টের জন্য Rassel Vuiya কে ধন্যবাদ জানিয়েছেন:

    Unregistered (1 )

  11. #7 সঙ্কুচিত পোস্ট
    প্রবীণ সদস্য Rassel Vuiya's Avatar
    নিবন্ধনের তারিখ
    Feb 2018
    মন্তব্য
    268
    অর্জিত পেমেন্টস
    370.19 USD
    ধন্যবাদ
    336
    123 টি পোস্টের জন্য 657 বার ধন্যবাদ পেয়েছেন
    আসন্ন বড়দিন উপলক্ষ্যে আমেরিকাতে কেনাকাটার ধুম পড়েছে, চলছে বিভিন্ন অফার। তার মধ্যে ব্লাক প্রাই ডে ও সাইবার মান-ডে তে পণ্য বিক্রির দিক থেকে নতুন রেকর্ড গড়েছে আমেরিকায়। ছাড়ে কেনা-কাটার বিশেষ এই দিনটিতে বিক্রি হয়েছে ৭'শ ৯০ কোটি ডলারের পণ্য। ছাড়ে কেনা-কাটার আরেক আয়োজন ব্ল্যাক ফ্রাইডের বিক্রি পৌঁছেছে ৬'শ ২ কোটি ডলার।

  12. আপনার ধন্যবাদ সরিয়ে ফেলুন

    নিম্নলিখিত দরকারী পোস্টের জন্য Rassel Vuiya কে ধন্যবাদ জানিয়েছেন:

    Unregistered (1 )

  13. #8 সঙ্কুচিত পোস্ট
    প্রবীণ সদস্য SHARIFfx's Avatar
    নিবন্ধনের তারিখ
    Jul 2018
    অবস্থান
    Noakhali,Chatkhil
    মন্তব্য
    1,159
    অর্জিত পেমেন্টস
    1,275.51 USD
    ধন্যবাদ
    24
    420 টি পোস্টের জন্য 719 বার ধন্যবাদ পেয়েছেন
    অনলাই শপিং এর পাশাপাশি আপনি ফরেক্স ট্রেড করে প্রফিট উত্তলন করে অনলাইল ব্যাংকে ট্রান্সফার করে সেই টাকা দিয়ে ঘরে বসে আনলাইন শপিং করতে পারেন। এটা আলাদা মজার বেপার। দেশে এখন অনেক অনলাইন শপিং সাইড আছে যেমন দারাজ, বিক্রয় ডটকম আরো অনেকে।

  14. #9 সঙ্কুচিত পোস্ট
    প্রবীণ সদস্য BDFOREX TRADER's Avatar
    নিবন্ধনের তারিখ
    Aug 2014
    মন্তব্য
    219
    অর্জিত পেমেন্টস
    243.25 USD
    ধন্যবাদ
    379
    88 টি পোস্টের জন্য 314 বার ধন্যবাদ পেয়েছেন
    download (2).jpg
    বিশ্বজুড়ে ই-কমার্সের মাধ্যমে শুধুমাত্র ২০১৯ সালে এখন পর্যন্ত মোট কেনাকাটার পরিমান প্রায় সাড়ে ৩ ট্রিলিয়ন ইউএস ডলার❗️*মিলিয়ন বা বিলিয়ন না। একেবারে ট্রিলিয়ন*এবং ধারনা করা হচ্ছে, ২০২২ সাল নাগাদ এই সংখ্যা বেড়ে দাঁড়াবে সাড়ে ৬ ট্রিলিয়নেরও বেশি!!*আর, ২০২১ সাল নাগাদ, বিশ্বব্যাপী অনলাইনের মাধ্যমে পন্য বা সেবা ক্রয় করা ক্রেতার সংখ্যা গিয়ে দাঁড়াতে পারে পারে ২.১৪ বিলিয়নের বেশি! এই ইন্টারনেটের যুগে এবং এই বিশাল গ্রোয়িং ইন্ডাস্ট্রির একটা অংশ হল বাংলাদেশ। বর্তমানে ঘরে বসেই অনেক উদোক্তা ফেইসবুক বা অনলাইন ব্যবহার করে নিজের স্বাধীনতায় ব্যবসায় করছে এবং নিজেকে একজন সফল অনলাইন উদোক্তা হিসাবে দাড় করিয়েছে।

  15. নিম্নলিখিত 6 সদস্য দরকারী পোস্টের জন্য BDFOREX TRADER কে ধন্যবাদ জানিয়েছেন:

    DhakaFX (11-26-2019),FXBD (11-26-2019),Montu Zaman (11-26-2019),Rakib Hashan (11-26-2019),Rassel Vuiya (11-26-2019),SaifulRahman (11-26-2019)

  16. #10 সঙ্কুচিত পোস্ট
    প্রবীণ সদস্য Rassel Vuiya's Avatar
    নিবন্ধনের তারিখ
    Feb 2018
    মন্তব্য
    268
    অর্জিত পেমেন্টস
    370.19 USD
    ধন্যবাদ
    336
    123 টি পোস্টের জন্য 657 বার ধন্যবাদ পেয়েছেন

    প্রযুক্তির ছোঁয়ায় পুরনো অভ্যাস ভেঙে তৈরি হচ্ছে নতুন অভ্যাস। যুক্তরাষ্ট্রের এবারের ব্ল্যাক ফ্রাইডের কেনাকাটায় এর প্রভাব সুস্পষ্টভাবে লক্ষ করা গেছে। এ মৌসুমে জমকালো দোকানপাট বা শপিংমলের চেয়ে দেশটির অনলাইন লেনদেন এ ব্ল্যাক ফ্রাইডেতে রেকর্ড গড়েছে। দেশটিতে এ ব্ল্যাক ফ্রাইডেতে ৭৪০ কোটি ডলার অনলাইন লেনদেন হয়েছে বলে জানিয়েছে অ্যাডব অ্যানালিটিকস। ফোনসেট, কম্পিউটার বা ট্যাবলেটের মাধ্যমে এসব লেনদেন সম্পন্ন হয়েছে। এবারের ব্ল্যাক ফ্রাইডেতে খেলনাসামগ্রীর মধ্যে ‘ফ্রোজেন টু’র চাহিদা ছিল সবচেয়ে বেশি। অন্য উপহারসামগ্রীর মধ্যে ভিডিও গেমস ও অ্যাপল ল্যাপটপের চাহিদা ছিল শীর্ষে। আগের তুলনায় ক্রেতারা অনলাইন কেনাকাটায় বেশি ঝোঁকায় ব্ল্যাক ফ্রাইডের আনন্দমুখর শপিংমলগুলোয় এবার ভিড় কমেছে।

  17. আপনার ধন্যবাদ সরিয়ে ফেলুন

    নিম্নলিখিত দরকারী পোস্টের জন্য Rassel Vuiya কে ধন্যবাদ জানিয়েছেন:

    Unregistered (1 )

+ প্রসঙ্গে প্রত্যুত্তর
পৃষ্ঠা 1 of 2 12 গতগত

মন্তব্য নিয়মাবলি

  • আপনি হয়ত নতুন পোস্ট করতে পারবেন না
  • আপনি হয়ত মন্তব্য লিখতে পারবেন না
  • আপনি হয়ত সংযুক্তি সংযুক্ত করতে পারবেন না
  • আপনি হয়ত আপনার মন্তব্য পরিবর্তনপারবেন না
  • BB কোড হলো উপর
  • Smilies are উপর
  • [IMG] কোড হয় উপর
  • এইচটিএমএল কোড হল বন্ধ
বাংলাদেশ ফরেক্স ফোরাম � উপস্থাপন
ফোরাম সেবায় আপনাকে স্বাগতম যেটি ভার্চুয়াল স্যালুন হিসেবে সকল স্তরের ট্রেডারদের সাথে যোগাযোগ করার সুযোগ প্রদান করছে। ফরেক্স হলো একটি গতিশীল আর্থিক বাজার যেটি দিনে ২৪ঘন্টা খোলা থাকে। যে কেউ ব্রোকারেজ কোম্পানির মাধ্যমে এখানে কার্যক্রম সম্পাদন করতে পারে। এই ফোরামে আপনি কারেন্সি মার্কেটে ট্রেডিং এবং মেটাট্রেডার ফোর ও মেটাট্রেডার ফাইভের মাধ্যমে অনলাইন ট্রেডিং সম্পর্কিত বিস্তারিত বিবরণ পাবেন।

বাংলাদেশ ফরেক্স ফোরাম � ট্রেডিং আলোচনা
ফোরামের প্রত্যেক সদস্য বিভিন্ন আলোচনায় অংশগ্রহণ করতে পারেন, যার মধ্যে ফরেক্স সম্পর্কিত ও ফরেক্সের বাইরের বিভিন্ন বিষয়ও রয়েছে। ফোরাম বিভিন্ন মতামত এবং প্রয়োজনীয় তথ্য শেয়ারের জন্য ডিজাইন করা হয়েছে এবং এটি অভিজ্ঞ ও নতুন উভয় ধরণের ট্রেডারদের জন্য উন্মুক্ত। পারস্পরিক সহায়তা এবং সহনশীলতা অত্যন্ত প্রশংসনীয়। আপনি যদি অন্যদের সাথে আপনার অভিজ্ঞতা শেয়ার করতে চান অথবা ট্রেডিং সম্পর্কে আপনার জ্ঞান বৃদ্ধি করতে চান, তাহলে ট্রেডিং সম্পর্কিত আলোচনা "ফোরাম থ্রেড" এ আপনাকে স্বাগত।

বাংলাদেশ ফরেক্স ফোরাম � ব্রোকার এবং ট্রেডারদের মধ্যে আলোচনা (ব্রোকার সম্পর্কে)
ফরেক্সে সফল হতে চাইলে, যথেষ্ট কৌশলের সাথে একটি ব্রোকারেজ কোম্পানি বাছাই করতে হবে। আপনার ব্রোকার সত্যিই নির্ভরযোগ্য সেটি নির্ধারণ করুন! এভাবে আপনি অনেক ঝুঁকির সম্মুখীন হবেন এবং ফরেক্সে লাভজনক ট্রেড করতে পারবেন। ফোরামে একজন ব্রোকারের রেটিং উপস্থাপন করা হয়; এটি তাদের গ্রাহকদের রেখে যাওয়া মন্তব্য নিয়ে তৈরি করা হয়। আপনি যে ব্রোকার কোম্পানির সাথে কাজ করছেন সে কোম্পানি সম্পর্কে আপনার মতামত দিন, এটি অন্যান্য ট্রেডারদের ভুল সংশোধন করতে সাহায্য করবে এবং একজন ভালো ব্রোকার বাছাই করতে সাহায্য করবে।

অবিচ্ছিন্ন যোগাযোগ বাংলাদেশ ফরেক্স ফোরাম
এই ফোরামে আপনি শুধু ট্রেডিং এর বিষয় সম্পর্কেই কথা বলবেন না, সেইসাথে আপনার পছন্দের যে কোন বিষয় সম্পর্কে কথা বলতে পারবেন। বিশেষ থ্রেডে অফটপিং ও করা যায়! আপনার পছন্দের যে কোন হাস্যরস, দর্শন, সামাজিক সমস্যা বা বাস্তব জ্ঞান সম্পর্কিত কথাবার্তা এখানে উল্লেখ করতে পারবেন, এমনকি আপনি যদি পছন্দ করেন তাহলে ফরেক্স ট্রেডিং সম্পর্কেও লিখতে পারবেন!

যোগদান করার জন্য বোনাস বাংলাদেশ ফরেক্স ফোরামে
যারা ফোরামে লেখা পোষ্ট করবে তারা বোনাস হিসেবে অর্থ পাবে এবং সেই বোনাস একটি অ্যাকাউন্টে ট্রেডিং এর সময় ব্যবহার করতে পারবে. ফোরাম অর্থ মুনাফা লাভ করা নয়, অধিকন্তু, ফোরামে সময় ব্যয় করার জন্য এবং কারেন্সি মার্কেট ও ট্রেডিং সম্পর্কে মতামত শেয়ারের জন্য পুরষ্কার হিসেবে ফোরামিটিস অল্প কিছু বোনাস পায়।