আয় করুন
$50000
বন্ধুদের আমন্ত্রণ করার জন্য
ইন্সটাফরেক্স থেকে স্টার্টআপ
বোনাস নিন
কোন বিনিয়োগের প্রয়োজন নেই!
কোনো বিনিয়োগ এবং ঝুঁকি
ছাড়াই ট্রেডিং শুরু করতে
গ্রহণ করুন নতুন স্টার্টআপ
বোনাস $1000
বোনাস নিন
৫৫%
ইন্সটাফরেক্স থেকে
প্রতিবার অর্থ জমাদানে
+ প্রসঙ্গে প্রত্যুত্তর
ফলাফল দেখাচ্ছে 1 হইতে 5 সর্বমোট 5

প্রসংগ: নগদ ডিজিটাল ওয়ালেট

  1. #1 সঙ্কুচিত পোস্ট
    প্রবীণ সদস্য DhakaFX's Avatar
    নিবন্ধনের তারিখ
    Oct 2017
    মন্তব্য
    368
    অর্জিত পেমেন্টস
    61.28 USD
    ধন্যবাদ
    432
    93 টি পোস্টের জন্য 294 বার ধন্যবাদ পেয়েছেন

    নগদ ডিজিটাল ওয়ালেট

    নগদ.jpg
    দেশে দিন দিন বেড়েই চলেছে মোবাইল ব্যাংকিং সার্ভিস। সহজ এবং দ্রুততম সময়ে এই ডিজিটাল ব্যাংকিং জনপ্রিয় হয়ে উঠছে সকল শ্রেণীর মানুষের কাছে। আর এই ক্রমবর্ধমান ডিজিটাল ফিন্যান্সিয়াল সার্ভিস (ডিএফএস) বিপ্লবের নেতৃত্ব দেওয়ার লক্ষ্যে*নগদ*বাংলাদ েশ ডাক বিভাগের একটি উদ্যোগ, যা সম্প্রতি*বাংলাদেশ র জনগণের জন্য আর্থিক সেবাখাতকে আরও সহজ ও নিরাপদ করতে বাংলাদেশ ডাক বিভাগের ডিজিটাল লেনদন “নগদ”-কে “পরিচয়” অ্যাপ্লিকেশনের সাথে সংযুক্ত করে*দিন, ঘণ্টার ব্যবধান দূর করে এখন মাত্র ‘১ মিনিটে নগদ অ্যাকাউন্ট’ সেবা*চালু করেছে।**“পরিচয়” অ্যাপ্লিকেশনের মাধ্যমে “নগদ” স্বয়ংক্রিয়ভাবে এক মিনিটে ফেস অথেনটিকেশন ও জাতীয় পরিচয়পত্র যাচাই করতে পারে। ফলে “নগদ”-এর এই পদ্ধতির কারণে ভুয়া গ্রাহক তৈরির কোনো সুযোগ থাকবে না।**

  2. নিম্নলিখিত 4 সদস্য দরকারী পোস্টের জন্য DhakaFX কে ধন্যবাদ জানিয়েছেন:

    Rakib Hashan (10-24-2019),SaifulRahman (10-24-2019),Tofazzal Mia (10-24-2019)

  3. #2 সঙ্কুচিত পোস্ট
    প্রবীণ সদস্য Rassel Vuiya's Avatar
    নিবন্ধনের তারিখ
    Feb 2018
    মন্তব্য
    262
    অর্জিত পেমেন্টস
    360.78 USD
    ধন্যবাদ
    316
    120 টি পোস্টের জন্য 622 বার ধন্যবাদ পেয়েছেন
    করোনাভাইরাস বিশ্বব্যাপী একটি আতঙ্কের নাম। বাংলাদেশও এই সমস্যার সম্মুখীন। বাংলাদেশ ডাক বিভাগের ডিজিটাল আর্থিক লেনদেন সেবা 'নগদ' দেশের মানুষের জন্য বিভিন্ন ধরনের উদ্যোগ নিয়ে সাধারণ মানুষের পাশে দাঁড়াতে তার বিজ্ঞাপন বাজেট কমিয়ে এনে সেই টাকা লেনদেন খরচ কমানোর কাজে ব্যবহার করছে। পাশাপাশি 'নগদ'-এ প্রথম ১০০০ টাকা ক্যাশ আউটে চার্জ না নেওয়া এবং নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্য ও ওষুধের সেটেলমেন্ট চার্জ শূন্য করার মতো উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। এ ছাড়া দেশের ৪৯২টি উপজেলায় অসহায় মানুষের মধ্যে খাবার ও নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্য বিনামূল্যে বিতরণ করছেন 'নগদ'-এর কর্মীরা। আর 'নগদ' এই উদ্যোগের নাম দিয়েছে 'মানুষ বাঁচলে, দেশ বাঁচবে'। দেশের জন্য এমন উদ্যোগের প্রশংসা করে 'নগদ'-এর সঙ্গে থেকে কাজ করার প্রত্যয় ব্যক্ত করেছেন বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দলের সাবেক অধিনায়ক ও সংসদ সদস্য মাশরাফি বিন মুর্তজা।
    ScreenShot3243.jpg
    এই খবর জাতীয় গণমাধ্যমে প্রকাশিত হওয়ার পর বাংলাদেশের অন্যতম জনপ্রিয় ক্রিকেটার মাশরাফি বিন মুর্তজা একটি সেলফি ভিডিওর মাধ্যমে 'নগদ'-এর এই উদ্যোগের প্রশংসা করেন। ভিডিওতে তিনি বলেন, দেশের এই পরিস্থিতিতে অনেক টেনশন কাজ করে। কিন্তু কোনো কোনো নিউজ মনটা অনেক ভালো করে দেয়। যেমন, আজ সকালে পেপারে দেখলাম 'নগদ' তাদের বিজ্ঞাপনের খরচ কমিয়ে এই টাকা দেশের কল্যাণে খরচ করবে। তার মানে 'নগদ' শুধু ব্যবসার দিকটা চিন্তা না করে এই সংকটকালে দেশের মানুষের কথা চিন্তা করছে। 'নগদ' একটি সরকারি প্রতিষ্ঠান, তার অর্থ হচ্ছে এর মালিক আমি, আপনি, সবাই। তাই আসুন আমরা 'নগদ'-এর মতো করে যে যার অবস্থান থেকে এগিয়ে আসি। 'নগদ'-এর মতো করেই বলি, 'মানুষ বাঁচলে দেশ বাঁচবে'। তাই 'নগদ'-এর এই সিদ্ধান্তকে আমরা স্যালুট জানাই।

  4. #3 সঙ্কুচিত পোস্ট
    প্রবীণ সদস্য BDFOREX TRADER's Avatar
    নিবন্ধনের তারিখ
    Aug 2014
    মন্তব্য
    213
    অর্জিত পেমেন্টস
    238.47 USD
    ধন্যবাদ
    358
    82 টি পোস্টের জন্য 279 বার ধন্যবাদ পেয়েছেন
    সরকারি প্রতিষ্ঠান হলেও বাজারে এসে অল্প সময়েই এগিয়ে গেছে ডাক বিভাগের ডিজিটাল লেনদেন সেবা ‘নগদ’। নগদের ৫১ শতাংশ শেয়ার ডাক বিভাগের হাতে, বাকি ৪৯ ভাগ থার্ড ওয়েভের।নগদের সেবা বাংলাদেশ ব্যাংকের নিয়ন্ত্রণের বাইরে। ফলে মোবাইল ব্যাংকিং নিয়ে বাংলাদেশ ব্যাংকের যে নিয়মকানুন রয়েছে, তা তাদের অনুসরণ করতে হয় না। অন্য সব মোবাইল ব্যাংকিং কার্যক্রম কোনো না কোনো ব্যাংকের সেবা বা সহযোগী প্রতিষ্ঠান। তবে নগদ হচ্ছে সরকারের ডাক বিভাগের সহযোগী। নগদের লেনদেন সীমা বেশি এবং যেকোনো মোবাইল নম্বরে টাকা পাঠানোর সুযোগ থাকায় অল্প সময়ে নগদের বড় ধরনের গ্রাহক প্রবৃদ্ধি হয়েছে। । এছাড়া সম্প্রতি পোশাক শ্রমিকদের বেতন-ভাতা মোবাইল ফাইনানশিয়াল সার্ভিসের (এমএফএস) মাধ্যমে দেওয়ার নির্দেশনা আসার পর ১৫ দিনে ‘নগদ’সাত লাখের কাছাকাছি নতুন গ্রাহক পেয়েছে।
    1bf21b604987dedb711bc270169c4826-5e4a28cb9626c.jpg
    নগদের ব্যবস্থাপনা পরিচালক তানভীর আহমেদ বলেন, “আমরা নতুন করে প্রচার চালিয়েছি। শ্রমিকদের হিসাব খোলার জন্য বিভিন্ন উদ্যোগ নিয়েছি। এর ফলে প্রায় ৭ লাখ নতুন করে হিসাব খোলা সম্ভব হয়েছে।”

  5. #4 সঙ্কুচিত পোস্ট
    প্রবীণ সদস্য FREEDOM's Avatar
    নিবন্ধনের তারিখ
    Apr 2020
    মন্তব্য
    1,246
    অর্জিত পেমেন্টস
    540.29 USD
    ধন্যবাদ
    251
    505 টি পোস্টের জন্য 914 বার ধন্যবাদ পেয়েছেন
    বর্তমানে অনেক মোবাইল ব্যাংকিং সেবাই বের হয়েছে এবং এক্ষেত্রে নতুন যুক্ত হয়েছে ডাক বিভাগের নগদ ডিজিটাল লেনদেন। আমি নিজেও এই নগদে একাউন্ট খুলেছি এবং এখানে চার্জ যেমন কম কাটে তেমনি মানি লেনদেনও ইজিলি করা যায় আর ভেরিফাই অপশনও খুবই সোজা। সকলেই এই সুবিধার আওতায় আসতে পারে।

  6. #5 সঙ্কুচিত পোস্ট
    প্রবীণ সদস্য Rakib Hashan's Avatar
    নিবন্ধনের তারিখ
    Jan 2018
    মন্তব্য
    271
    অর্জিত পেমেন্টস
    559.47 USD
    ধন্যবাদ
    379
    101 টি পোস্টের জন্য 566 বার ধন্যবাদ পেয়েছেন
    দেশে ব্যাংকিং ব্যবসার পাশাপাশি ব্যাংকিং খাতের বাহিরের মানুষ গুলোকে ব্যাংকিং সেবার আওতায় আনার জন্যই মুলুত এই মোবাইল ব্যাংকিং সেবার জন্ম। এখনো দেশে প্রায় অর্ধেক মানুষের ব্যাংক একাউন্ট নেই। কিন্তু নগদ বা বিকাশের মতো দেশের মোবাইল ব্যাংকিং প্রতিষ্ঠান গুলো ডাকাত, উফ প্রতি লাখে ১ হাজার ৮০০ টাকার মতো তারা চার্জ নিচ্ছে। মানে তাদের লাভ তো প্রতিদিন হাজার হাজার কোটি টাকা। প্রতি হাজারে টাকা পাঠাতে খরচ হয় ১৮ টাকার মতো ( mfs ভেদে কিছু কম বেশি চার্জ আছে) । এক লাখ টাকা পাঠাতে ১৮০০ টাকার মতো খরচ। এটা কি মগের মুল্লুক, হ্যা আমি দুই ভাবে বললাম- একটি, হাজারে ১৮ টাকা। আরেকটি, লাখে ১৮০০ টাকা। জানিয়ে রাখি, বাংলাদেশে অনুমোদন নিয়ে ২০১০ সালের আগস্ট মাসে ট্রাস্ট ব্যাংক আনুষ্ঠানিক ভাবে মোবাইল ব্যাংকিং শুরু করে। এরপর ২০১১ সালের মে মাসে ডাচ বাংলা ব্যাংক, তারপর ঐ বছরেই জুলাই মাসে বিকাশ দেশে আনুষ্ঠানিক ভাবে যাত্রা শুরু করে। তারপরে আরো অনেকে শুরু করেছে।

+ প্রসঙ্গে প্রত্যুত্তর

মন্তব্য নিয়মাবলি

  • আপনি হয়ত নতুন পোস্ট করতে পারবেন না
  • আপনি হয়ত মন্তব্য লিখতে পারবেন না
  • আপনি হয়ত সংযুক্তি সংযুক্ত করতে পারবেন না
  • আপনি হয়ত আপনার মন্তব্য পরিবর্তনপারবেন না
  • BB কোড হলো উপর
  • Smilies are উপর
  • [IMG] কোড হয় উপর
  • এইচটিএমএল কোড হল বন্ধ
বাংলাদেশ ফরেক্স ফোরাম � উপস্থাপন
ফোরাম সেবায় আপনাকে স্বাগতম যেটি ভার্চুয়াল স্যালুন হিসেবে সকল স্তরের ট্রেডারদের সাথে যোগাযোগ করার সুযোগ প্রদান করছে। ফরেক্স হলো একটি গতিশীল আর্থিক বাজার যেটি দিনে ২৪ঘন্টা খোলা থাকে। যে কেউ ব্রোকারেজ কোম্পানির মাধ্যমে এখানে কার্যক্রম সম্পাদন করতে পারে। এই ফোরামে আপনি কারেন্সি মার্কেটে ট্রেডিং এবং মেটাট্রেডার ফোর ও মেটাট্রেডার ফাইভের মাধ্যমে অনলাইন ট্রেডিং সম্পর্কিত বিস্তারিত বিবরণ পাবেন।

বাংলাদেশ ফরেক্স ফোরাম � ট্রেডিং আলোচনা
ফোরামের প্রত্যেক সদস্য বিভিন্ন আলোচনায় অংশগ্রহণ করতে পারেন, যার মধ্যে ফরেক্স সম্পর্কিত ও ফরেক্সের বাইরের বিভিন্ন বিষয়ও রয়েছে। ফোরাম বিভিন্ন মতামত এবং প্রয়োজনীয় তথ্য শেয়ারের জন্য ডিজাইন করা হয়েছে এবং এটি অভিজ্ঞ ও নতুন উভয় ধরণের ট্রেডারদের জন্য উন্মুক্ত। পারস্পরিক সহায়তা এবং সহনশীলতা অত্যন্ত প্রশংসনীয়। আপনি যদি অন্যদের সাথে আপনার অভিজ্ঞতা শেয়ার করতে চান অথবা ট্রেডিং সম্পর্কে আপনার জ্ঞান বৃদ্ধি করতে চান, তাহলে ট্রেডিং সম্পর্কিত আলোচনা "ফোরাম থ্রেড" এ আপনাকে স্বাগত।

বাংলাদেশ ফরেক্স ফোরাম � ব্রোকার এবং ট্রেডারদের মধ্যে আলোচনা (ব্রোকার সম্পর্কে)
ফরেক্সে সফল হতে চাইলে, যথেষ্ট কৌশলের সাথে একটি ব্রোকারেজ কোম্পানি বাছাই করতে হবে। আপনার ব্রোকার সত্যিই নির্ভরযোগ্য সেটি নির্ধারণ করুন! এভাবে আপনি অনেক ঝুঁকির সম্মুখীন হবেন এবং ফরেক্সে লাভজনক ট্রেড করতে পারবেন। ফোরামে একজন ব্রোকারের রেটিং উপস্থাপন করা হয়; এটি তাদের গ্রাহকদের রেখে যাওয়া মন্তব্য নিয়ে তৈরি করা হয়। আপনি যে ব্রোকার কোম্পানির সাথে কাজ করছেন সে কোম্পানি সম্পর্কে আপনার মতামত দিন, এটি অন্যান্য ট্রেডারদের ভুল সংশোধন করতে সাহায্য করবে এবং একজন ভালো ব্রোকার বাছাই করতে সাহায্য করবে।

অবিচ্ছিন্ন যোগাযোগ বাংলাদেশ ফরেক্স ফোরাম
এই ফোরামে আপনি শুধু ট্রেডিং এর বিষয় সম্পর্কেই কথা বলবেন না, সেইসাথে আপনার পছন্দের যে কোন বিষয় সম্পর্কে কথা বলতে পারবেন। বিশেষ থ্রেডে অফটপিং ও করা যায়! আপনার পছন্দের যে কোন হাস্যরস, দর্শন, সামাজিক সমস্যা বা বাস্তব জ্ঞান সম্পর্কিত কথাবার্তা এখানে উল্লেখ করতে পারবেন, এমনকি আপনি যদি পছন্দ করেন তাহলে ফরেক্স ট্রেডিং সম্পর্কেও লিখতে পারবেন!

যোগদান করার জন্য বোনাস বাংলাদেশ ফরেক্স ফোরামে
যারা ফোরামে লেখা পোষ্ট করবে তারা বোনাস হিসেবে অর্থ পাবে এবং সেই বোনাস একটি অ্যাকাউন্টে ট্রেডিং এর সময় ব্যবহার করতে পারবে. ফোরাম অর্থ মুনাফা লাভ করা নয়, অধিকন্তু, ফোরামে সময় ব্যয় করার জন্য এবং কারেন্সি মার্কেট ও ট্রেডিং সম্পর্কে মতামত শেয়ারের জন্য পুরষ্কার হিসেবে ফোরামিটিস অল্প কিছু বোনাস পায়।