Name: 240541456_5227120570647793_8031066060882637596_n.jpg Views: 99 Size: 38.7 KB
১. রাতে গাড়ি চালালে অবশ্যই গাড়ির হেডলাইট জ্বালাতে ভুলবেন না। অনেক সময় মনে হয় রাস্তায় তো লাইট আছে সব দেখা যাচ্ছে, তাহলে হেডলাইট জ্বালাব কেন? হেডলাইট শুধু রাস্তা দেখার জন্যই না, অন্য গাড়ির চালকরা এই হেডলাইটের কারণেই দূর থেকে আপনার গাড়ি দেখতে পারবে এবং সতর্ক হবে। বিশ্বে অনেক দেশ আছে, যেখানে হেডলাইট জ্বালানো ছাড়া রাতে এবং খুব সকালে গাড়ি চালানো দণ্ডনীয় অপরাধ। ক্যালিফোর্নিয়ায় সূর্যোদয় এবং সূর্যাস্তের অন্তত দেড়ঘণ্টা আগে হেডলাইট জ্বালানোর আইনসম্মত নিয়ম রয়েছে।
২. রাতে রাস্তায় গাড়ি অনেক কম থাকে। কিন্তু তার মানে এই নয় যে অনেক দ্রুত গাড়ি চালাতে হবে। রাতে হাইওয়েতে গাড়ির স্পিড যত কম হবে দুর্ঘটনার আশঙ্কা ততই কম থাকবে। হাঠাৎ করেই কোনো কিছু গাড়ির সামনে আসলে আপনি সহজেই গাড়িকে নিয়ন্ত্রণ করতে পারবেন।
৩. নেশাজাতীয় দ্রব্য সেবনের পর গাড়ি না চালানোটাই ভালো। এখনো পৃথিবীতে বেশির ভাগ দুর্ঘটনাই ঘটে নেশা করে গাড়ি চালানোর কারণে। এমনকি আপনি যদি অনেক ক্লান্ত থাকেন তাহলে ভুলেও নিজে গাড়ি চালাবেন না। এতে আপনার গাড়ি চালানোর ভারসাম্য নাও থাকতে পারে।
৪. রাতে রাস্তার ওপর জীবজন্তু ঘোরাফেরা করে। অন্ধকারের কারণে এসব প্রাণীকে খালি চোখে দেখা যায় না। একদম গাড়ির সামনে চলে এলে তখন অনেকেই ব্রেক করতে পারে না। যার ফলে ঘটে যায় বড় রকমের দুর্ঘটনা। তাই গাড়ি চালানোর সময় সতর্ক থাকা খুবই জরুরি।
৫. সবসময় রাস্তার দিকে নজরে রাখুন। লুকিং গ্লাস দিয়ে পিছনের গাড়িগুলোর দিকে খেয়াল রাখুন। কারণ আপনি যদি হুট করেই ব্রেক করে ফেলেন তাহলে পিছনের গাড়িটি দুর্ঘটনার কবলে পড়তে পারে। তাই সামনে-পিছনে দুই দিকেই নজর রেখে গাড়ি চালান।
৬. অবশ্যই গাড়ির সিটবেল্ট বেঁধে নিবেন। সঙ্গে যারা আছেন তাদেরও ব্লেট বাঁধার জন্য উপদেশ দেবেন। লুকিং গ্লাস ঠিকঠাক আছে কি না গাড়ি চালানোর আগে খেয়াল করুন। লম্বা পথ হলে বেশি করে তেল/গ্যাস নিয়ে নিন। কারণ মাঝপথে তেলের পাম্প নাও থাকতে পারে।
৭. গাড়ির গ্লাসগুলো ভালো করে মুছে পরিষ্কার করে নিন। যাতে চালানোর সময় ঝাপসা না লাগে। এমনকি হেডলাইটও মুছে পরিষ্কার করে নিন। যাতে আলোটা স্বচ্ছ থাকে। আর রাতে উচ্চ ক্ষমতা সম্পন্ন আলো জ্বালিয়ে রাখবেন।
৮. যদি আপনি চোখে চশমা পরেন তাহলে গাড়ি চালানোর সময় অ্যান্টি রিফলেক্টিভ গ্লাস ব্যবহার করুন। এতে দূরের জিনিস দেখতে এবং বেশি আলোতে কোনো সমস্যা হবে না। আর দুটি চশমা কাছে রাখার চেষ্টা করুন। কারণ একটি চশমা ভেঙে গেলে অথবা নষ্ট হইয়া গেলে অন্যটি আপনার কাজে লাগেবে। দূরত্বটা যদি একটু বেশি হয় তাহলে সব ধরণের প্রস্তুতি রাখাই জরুরি।
৯. রাতে একটানা গাড়ি চালাবেন না। নিজের সঙ্গী থাকলে তার সথে কথা বলুন, অথবা ধর্মীয় বিষয়ে রেডিওতে কোন কিছু শুনুন। এতে চোখে ঘুমের ভাব থাকবে না। শরীর বেশি ক্লান্ত লাগলে কিছুক্ষণ পরপর গাড়ি থামিয়ে বিশ্রাম নিতে পারেন।
১০. রাতে গাড়ি চালানোর সময় একটু সাবধানে থাকুন। অপরিচিত কেউ গাড়ি থামাতে বললে কোনো কিছু না বুঝেই গাড়ি থামাবেন না। এমনকি গাড়িতে অপরিচিত কাউকে নেওয়ারও চেষ্টা করবেন না। ঈদের সময় ডাকাতির অনেক আশঙ্কা থাকে। তাই যেকোনো কাজ করার আগে চিন্তা করে নিন