যুক্তরাষ্ট্রকে পেছনে ফেলে বিশ্বের শীর্ষ ধনী দেশ হিসেবে নিজেদের অবস্থা দৃঢ় করেছে চীন। গত দুই দশকে বিশ্বের মোট সম্পদের পরিমাণ প্রায় তিন গুণ হয়েছে। এতে নেতৃত্ব দিয়েছে চীন। গবেষণা প্রতিষ্ঠান ম্যাককিনসে অ্যান্ড কোম্পানির করা এক গবেষণায় এ তথ্য উঠে এসেছে।গবেষণায় বিশ্বের সবচেয়ে ধনী ১০টি দেশের জাতীয় হিসাবনিকাশের তালিকা ব্যবহার করা হয়েছে। বলা হচ্ছে, এ দেশগুলোই আবার বিশ্বের মোট আয়ের ৬০ শতাংশের মালিক। ২০০০ সালে বিশ্বের মোট সম্পদের পরিমাণ ছিল ১৫৬ লাখ কোটি ডলার। ২০২০ সালে এসে তা দাঁড়িয়েছে ৫১৪ লাখ কোটি ডলারে। এ উলম্ফনের এক-তৃতীয়াংশের অবদান চীনের। অর্থাৎ পৃথিবীতে এ সময়ের মধ্যে যে পরিমাণ সম্পদ বেড়েছে তার প্রায় তিন ভাগের এক ভাগই চীনের। ২০০০ সালে চীনের মোট সম্পদের পরিমাণ ছিল ৭ লাখ কোটি ডলার। ২০২০-এ এসে সে সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ১২০ লাখ কোটি ডলারে।
যুক্তরাষ্ট্রের পিছিয়ে পড়ার অন্যতম কারণ হলো এর সম্পদের দামের বৃদ্ধি। যদিও এ সময়ের মধ্যে দেশটির মোট সম্পদের পরিমাণ দ্বিগুণ হয়েছে। এ মুহূর্তে যুক্তরাষ্ট্রের মোট সম্পদের পরিমাণ ৯০ লাখ কোটি ডলার। ম্যাককিনসের পরিসংখ্যান বলছে, বিশ্বের মোট সম্পদের ৬৮ শতাংশই আবাসন বা রিয়েল এস্টেট খাতের হাতে। এছাড়া এ দুটি দেশের ১০ শতাংশ ধনকুবেরের হাতে রয়েছে বিশ্বের মোট সম্পদের দুই-তৃতীয়াংশ। সময়ের সঙ্গে সঙ্গে বাড়ছে এ অতি ধনীদের সম্পদের পরিমাণ।
Name: news_280429_1.jpg Views: 2 Size: 45.5 KB ID: 15975