আর্টিফিশিয়াল ইন্টেলিজেন্স (এআই) নামটি শুনলেই ‘দ্য টার্মিনেটর’, ‘আই, রোবট’ বা ‘ব্লেড রানার’-এর মতো হলিউডি সিনেমার কথা মনে পড়তে পারে পাঠকের। কল্পকাহিনী আর হলিউডের বদৌলতে এআই নির্ভর রোবট প্রশ্নে বাঁকা চোখে তাকান অনেকেই। কিন্তু সেই এআই নির্ভর রোবট যদি অস্ত্র হাতে সিনেমার নায়ককে তাড়া না করে কবিতা লেখা শুরু করে বা মৌলিক শিল্প কর্ম সৃষ্টি করে, তবে কেমন হবে সেই রোবট?
এআই বা রোবটিক্স প্রযুক্তি সাধারণত শিল্প-সংস্কৃতি আলোচনার অংশ হিসেবে বিবেচিত হয় না। কিন্তু সেই দৃশ্যপট যেন পাল্টে দিচ্ছে ‘আই-ডা’। কবিতা লিখতে ও ছবি আঁকতে পারে রোবটটি। রক্ত-মাংসের মানুষের সাহায্য নিয়ে ভাস্কর্য তৈরির সক্ষমতাও আছে আই-ডা’র। ‘আই-ডা’ নির্মাণ করেছেন অক্সফোর্ড, ইংল্যান্ডের বাসিন্দা আইড্যান মেলার। ‘আই-ডা’কে বলা হচ্ছে পৃথিবীর প্রথম “আল্ট্রা-রিয়ালিস্টিক হিউম্যানোয়েড রোবট আর্টিস্ট”। গেল শুক্রবারেই কিংবদন্তীসম ইতালিয়ান কবি দান্তের সাতশ’তম মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষ্যে আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে কবিতা পড়ে শুনিয়েছে ‘আই-ডা’। আর কবিতাটি লিখেছে ‘আই-ডা’র এআই অ্যালগরিদম।