Name: Screenshot_20220401-191420.png Views: 1 Size: 216.4 KB ID: 17286
ইউক্রেইন সীমান্তের নিকটবর্তী রাশিয়ার বেলগোরোদ শহরের একটি তেলের ডিপোতে বড় ধরনের অগ্নিকাণ্ডের সূচনা হয়েছে। সম্প্রচারমাধ্যম জানিয়েছে মাত্র তিন দিন আগে এই একই শহরটি একটি গোলাবারুদের গুদামে ঘটা ধারাবাহিক বিস্ফোরণে প্রকম্পিত হয়েছিল। স্থানীয় সময় শুক্রবার সকালে ইউক্রেইনের সীমান্ত থেকে উত্তরপূর্বে প্রায় ৩৫ কিলোমিটার দূরে বেলগোরোদ অঞ্চলের প্রশাসনিক রাজধানীতে ঘটনাটি ঘটেছে। স্থানীয় সময় ভোর ৬টা থেকেই আগুনের ছবি ও ভিডিও অনলাইনে ছড়িয়ে পড়তে শুরু করে। ডিপোর ৮টি ট্যাংকে আগুন জ্বলছে, আরও ৮টি ট্যাংক আগুন ছড়িয়ে পড়ার হুমকির মুখে আছে বলে জরুরি বিভাগের বরাত দিয়ে জানিয়েছে রাশিয়ার রাষ্ট্রায়ত্ত সম্প্রচার মাধ্যমটি। আঞ্চলিক প্রশাসনের প্রধান ভিচেস্লাভ গ্লাদকভ জানিয়েছেন, স্থাপনাটির দুই কর্মী আহত হয়েছন তবে তাদের জখম প্রাণসংহারী নয়। টেলিগ্রামে দেয়া এক বিবৃতিতে গ্লাদকভ বলেছেন জরুরি বিভাগের কর্মীরা ঘটনাস্থলে আছেন। ঘটনার কারণ পরে আমরা জানতে পারবো। আগুন নিয়ন্ত্রণে আনতে দমকল কর্মীদের হিমশিম খেতে হচ্ছে আর এ কারণে নিকটবর্তী তিনটি রাস্তার বাসিন্দাদের সরিয়ে নেওয়া হচ্ছে বলে জানিয়েছেন তিনি। এ অগ্নিকাণ্ডের জন্য বেলগোরোদ অঞ্চলের এ গভর্নর ইউক্রেইনের সামরিক হেলিকপ্টারের হামলাকে দায়ী করেছেন। তবে এ ঘটনার কোনো দায় ইউক্রেইন স্বীকার করেনি। শুক্রবার বেলগোরোদের তেলের ডিপোতে দুটি ইউক্রেইনীয় সামরিক হেলিকপ্টার হামলা চালিয়েছে বলে রাশিয়ার এক কর্মকর্তা জানিয়েছেন। ফেব্রুয়ারির শেষে দিকে মস্কো প্রতিবেশী দেশটিতে আক্রমণ শুরু করার পর থেকে এই প্রথম রাশিয়ার মাটিতে ইউক্রেইনের বিমান হামলা করেছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেল। কথিত এই হামলার যেসব ভিডিও অনলাইনে পোস্ট করা হয়েছে তা দেখে কম উচ্চতা থেকে বেশ কয়েকটি ক্ষেপণাস্ত্র ছোড়া হয়েছে বলে মনে হয়েছে, আর এরপরই বিস্ফোরণ ঘটে। তবে এসব ভিডিও যাচাই করে দেখতে পারেনি। নিচু দিয়ে উড়ে সীমান্ত পাড়ি দিয়ে এসে হেলিকপ্টারগুলো তেল ডিপোতে হামলা চালিয়েছে, আঞ্চলিক গভর্নর গ্লাদকভ টেলিগ্রামে এমনটি বলেছেন বলে বার্তা সংস্থাটি জানিয়েছে।তেল ডিপোটির মালিকানা প্রতিষ্ঠান রাশিয়ার তেল কোম্পানি রোশনিয়েফ্ট পৃথক এক বিবিৃতিতে জানায়, অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় কেউ আহত হয়নি। তবে অগ্নিকাণ্ডের কারণ নিয়ে তারা কিছু বলেনি। মঙ্গলবার রাতে বেলগোরোদের নিকটবর্তী এক এলাকায় গোলাবারুদের একটি গুদামে বেশ কয়েকটি বিস্ফোরণ ঘটে। ওই ঘটনায় রাশিয়ার ৪ সেনা আহত হয় বলে জানা গেছে। একটি ক্ষেপণাস্ত্রের আঘাতে ওই গোলাবারুদের গুদামে বিস্ফোরণগুলো ঘটেছে বলে ইউক্রেইনের কিছু গণমাধ্যম দাবি করেছিল। কিন্তু রাশিয়ার কর্তৃপক্ষ তা উড়িয়ে দেয়, সম্ভাব্য মানবিক ভুল’ এ ঘটনার জন্য দায়ী বলে মন্তব্য করে তারা। কিন্তু ওই বিস্ফোরণের প্রকৃত কারণ অজানাই থেকে গেছে বলে আরটি জানিয়েছে। ইউক্রেইনে রাশিয়ার সামরিক অভিযান অব্যাহত থাকার মধ্যেই দেশটির পশ্চিমাঞ্চলীয় সীমান্ত এলাকায় ধারাবাহিক এসব ঘটনা ঘটছে।