প্রতিনিয়ত মহাকাশে চলছে নানা রকম ঘটনা। চাঁদের পাশে এক সারিতে আসতে চলেছে মহাকাশের পাঁচটি গ্রহ। আকর্ষণীয় মহাজাগতিক দৃশ্য খালি চোখে দেখতে পান না সাধারণ মানুষ। তবে এক্ষেত্রে সেই সমস্যা নেই। পাঁচটা গ্রহের একই সরলরেখায় অবস্থান এবার খালি চোখেই স্পষ্টভাবে দেখার সুযোগ পাবেন। একই সরলরেখায় আসবে পাঁচটি গ্রহ। চলতি মাসেই অর্থাৎ এই জুন মাসেই দেখা যাবে এই বিরল দৃশ্য। জ্যোতির্বিজ্ঞানী া জানিয়েছেন, খালি চোখেই এই দৃশ্য দেখতে পাবেন আগ্রহীরা। জানা গেছে এই পাঁচটি গ্রহই সূর্যের থেকে যেভাবে স্বাভাবিক নিয়মে বিন্যস্ত থাকে সেভাবেই থাকবে।
বুধ, শুক্র, মঙ্গল, বৃহস্পতি ও শনি- এই পাঁচটি গ্রহ একই সরলরেখায় আসবে। এই পাঁচটি গ্রহের এক সরলরেখায় অবস্থান খালি চোখেই দেখা যাবে পূর্ব দিগন্তের কাছে। সূর্যোদয়ের ঠিক আগেই এই দৃশ্য দেখা যাবে। কারণ তারপর ক্রমশ এই বিরল দৃশ্য অস্পষ্ট, ফিকে হতে শুরু করবে। যারা উত্তর গোলার্ধের বাসিন্দা তাঁরা পূর্ব রবং দক্ষিণ দিকে এই গ্রহগুলির বিন্যাস দেখতে পাবেন।আর যাঁরা দক্ষিণ গোলার্ধে বসবাস করেন, তাঁরা পূর্ব এবং উত্তর দিকে এই পাঁচটি গ্রহের একই সরলেখায় অবস্থান দেখতে পাবেন।
তবে এভাবে একইসঙ্গে পাঁচটি গ্রহ একই সরলরেখায় বিন্যস্ত দেখার ঘটনা বেশ বিরল। এর আগে ২০০৪ সালের ডিসেম্বর মাসে খালি চোখে এমন দৃশ্য অর্থাৎ একই সরলরেখায় পাঁচটি গ্রহের অবস্থান দেখা গিয়েছিল। এবারের ঘটনায় বুধ এবং শনি গ্রহ একে অন্যের খুবই কাছাকাছি আসবে বলে জানিয়েছেন জ্যোতির্বিজ্ঞানী া।

স্কাই এন্ড টেলিস্কোপ জানিয়েছে, সারা জুন মাস ধরেই এই বিরল দৃশ্য দেখা যাবে। তবে এর মধ্যে কয়েকটি দিন বিশেষ গুরুত্বপূর্ণ। ৩ এবং ৪ জুন এই দু’দিন সকালে বুধ এবং শনি গ্রহের মধ্যে ব্যবধান সবচেয়ে কম থাকবে। মাত্র ৯১ ডিগ্রি। দর্শকদের কাছে আধঘণ্টারও কম সময় থাকবে। প্রথমে দিগন্তরেখা বরাবর দেখা যাবে বুধ গ্রহ। তারপর সূর্যোদয় হলে সেই আলোয় ঢাকা পড়ে যাবে বুধ গ্রহ। ২৪ জুন এই দিন সকালে পাঁচটি গ্রহের একই সরলরেখায় অবস্থান আরও স্পষ্টভাবে বোঝা যাবে। প্রায় এক ঘণ্টা ধরে এই বিরল মহাজাগতিক দৃশ্য দেখতে পাবেন আগ্রহীরা। তবে বুধ আর শুক্র গ্রহের মধ্যে ব্যবধান বেড়ে ১০৭ ডিগ্রি হবে। তবে এই দিন সকালে অন্যতম আকর্ষণ হবে শুক্র এবং মঙ্গলগ্রহের মাঝখানে থাকা একফালি চাঁদ, যা পৃথিবীর পরিবর্ত হিসেবে অবস্থান করবে। পাঁচটা গ্রহের একই সরলরেখায় অবস্থান এবার খালি চোখেই স্পষ্টভাবে দেখার সুযোগ পাবেন আগ্রহীরা। এমনকি মেঘলা আকাশ থাকলেও এই বিরল মহাজাগতিক দৃশ্য দেখা যাবে।