খোলা বাজারে দেশের ইতিহাসে প্রথমবারের মতো ডলারের দাম এখন ১১৯ টাকা। একদিন আগে গত সোমবার খোলা বাজারে ডলারের দাম ছিল ১১৫ টাকা। দুই দিনের ব্যবধানে আজ বুধবার চার টাকা বেড়ে ১১৯ টাকায় বিক্রি হচ্ছে ডলার। নগদ ডলারের সংকটের কারণে অধিকাংশ মানি এক্সচেঞ্জ বিক্রির চেয়ে কেনায় বেশি আগ্রহ।
খোলা বাজার ডলার বিক্রিতারা বলছেন, বেশিরভাগ মানি এক্সচেঞ্জেই এখন নগদ ডলার সংকট। বিক্রির চেয়ে কিনছে বেশি। তবে বিক্রি করার লোক নেই। বিক্রেতারা জানিয়েছেন, এতোদিন যারা রাস্তায় ডলার কেনাবেচা করতেন, কেন্দ্রীয় ব্যাংক ও আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর অভিযানের ভয়ে তারাও সরাসরি কেনাবেচা করছেন না।
দীর্ঘদিন ধরে খোলাবাজারের ডলার বিক্রেতা রিপন মিয়ার কাছে ডলারের দাম জানতে চাইলে বলেন, "এখন ডলার নাই, কেউ বিক্রি করলে ১১৫ থেকে ১১৬ টাকা রেট দেব। বিক্রির রেট কত জানতে চাইলে বলেন বিক্রি করার মতো ডলার নেই।গত ১৭ মে দে*শে খোলাবাজারে ডলার প্রথমবারের মতো ১০০ টাকার ঘর পেরোয়। এরপর আবার কমে আসে। গত ১৭ জুলাই ডলারের দাম আবারও ১০০ টাকা অতিক্রম করে। গত মা*সের শেষ দিকে ডলারের দাম ১১২ টাকায় উ*ঠে*ছিল। সবশেষ গত সোমবার (৮ আগস্ট) আন্তঃব্যাংক মুদ্রাবাজারে প্রতি ডলার কিনতে খরচ করতে হয়েছে ৯৫ টাকা। অর্থাৎ বাংলাদেশ ব্যাংক ওইদিন সরকারি আমদানি বিল মেটাতে এই দরে ব্যাংকগুলোর কাছে ডলার বিক্রি করেছে। নিয়ম অনুযায়ী এটিই ডলারের আনুষ্ঠানিক দর। একদিন আগেও এ দাম ছিল ৯৪ টাকা ৭০ পয়সা। মে মাসের শুরুর দিকে এ দর ছিল ৮৬ টাকা ৪৫ পয়সায়। এ হিসাবে দেড় মাসের ব্যবধানে টাকার মান কমেছে ৮ টাকা ৫৫ পয়সা।